প্রিয় শিক্ষার্থীরা
আসসালামু আলাইকুম।
রেটিনা পরিবারের পক্ষ থেকে তোমাদের সবাইকে জানাই স্বাগতম। অসহায় রোগাক্লিষ্ট মানুষের সেবায় আত্মনিয়োগের জন্য তোমরা যারা চিকিৎসক হবার মহান স্বপ্ন ধারণ করেছো তাদেরকে জানাই আন্তরিক শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন।


মেডিকেল ভর্তি পরিক্ষার প্রস্তুতি নেয়ার জন্য হাতে খুব অল্প সময় থাকে। সিলেবাসের ব্যাপকতার কারণে প্রস্তুতি গ্রহণ করতে গিয়ে যথেষ্ঠ হিমশিম খেতে হয়। পদার্থবিজ্ঞান, রসায়ন বিজ্ঞান এবং জীববিজ্ঞানে কাঙ্খিত নম্বরের জন্য যথাসাধ্য চেষ্টা থাকলেও সাধারণ জ্ঞান প্রস্তুতি সন্তোষজনক হয় না। বিশেষ করে মেডিকেল ভর্তি পরিক্ষার জন্য সাধারণজ্ঞান বিষয়ের উপর যথাযথ দিক নির্দেশনার অভাবে অনেকের মাঝে এ বিষয়ের প্রতি এক ধরনের বিতৃষ্ণা আর এড়িয়ে যাওয়ার মানসিকতা কাজ করে।


অথচ, সাধারণজ্ঞান বিষয়টাকে একটু গুছিয়ে নিলে পড়ার ক্ষেত্রে একটু কৌশলী হলেই মেডিকেল ভর্তি পরিক্ষায় সাধারণ জ্ঞানে ভালো করা সম্ভব। শিক্ষার্থীদেরকে মনে রাখতে হবে, মেডিকেলে চান্স পাওয়ার জন্য একটি নম্বরও অনেক গুরুত্বপূর্ণ। সাধারণজ্ঞানে ১০ নম্বর বলে এ বিষয়টাকে এড়িয়ে যাওয়া অথবা অল্প প্রস্তুতি নেয়া শিক্ষার্থীদের জন্য আত্মঘাতি হতে পারে।


সাধারণজ্ঞানে ভালো করার জন্য যে বিষয়গুলো খেয়াল রাখতে হবে সেগুলো হল-
১.    বিগত বছরগুলোতে মেডিকেল ভর্তি পরিক্ষায় সাধারণজ্ঞান থেকে আসা প্রশ্নগুলো ভালোভাবে দেখে নেয়া, পাশাপাশি BCS এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে সাধারণজ্ঞানের উপরে আসা বিগত ১০ বছরের প্রশ্নগুলোও ভালোভাবে দেখতে হবে। এর ফলে তোমাদের কাছে প্রশ্নের ধরণ পরিষ্কার হয়ে যাবে। তোমরা সহজেই বুঝতে পারবা মেডিকেল পরিক্ষায় সাধারণজ্ঞানের কোন কোন টপিক থেকে প্রশ্ন আসে।


২.    কোচিং শুরুর প্রথম থেকেই অন্যান্য বিষয়ের পাশাপাশি সাধারণ জ্ঞানের জন্য প্রতিদিন কমপক্ষে ৩০ মিনিট সময় বরাদ্দ রাখবা।


৩.    রেটিনার ডাইজেস্ট এবং গাইডের পাশাপাশি সাম্প্রতিকের জন্য একটি মাসিক পত্রিকা পড়তে হবে। (কারেন্ট অ্যাফেয়ার্স, ওয়াল্ড ইত্যাদি)


৪.    সাধারণ জ্ঞানের মৌলিক কিছু টপিকের উপর বিশেষভাবে জোর দিতে হবে। ২০০১-২০১৬ সাল পর্যন্ত মেডিকেল ভর্তি পরিক্ষায় সাধারণজ্ঞানের যেসকল টপিক থেকে বেশি প্রশ্ন কমন পড়েছে তার একটা পরিসংখ্যান দেয়া হল। কোচিং এর শুরু থেকেই এ টপিকগুলোতে বেশি জোর দিয়ে ভালোভাবে আয়ত্বে নিতে হবে।


৫.    সাধারণজ্ঞান বাংলাদেশ ও আন্তর্জাতিক বিষয়াবলীর উপর যে লেকচার গুলো হবে সেগুলোতে উপস্থিত হয়ে মনোযোগ দিয়ে লেকচার শুনতে হবে। যেটি সাধারণজ্ঞানে ভালো করার জন্য সবচেয়ে বেশি সহায়ক হবে।


সাধারণজ্ঞানের ব্যাপক পরিধি দেখে ভয় না পেয়ে গুরুত্বপূর্ণ টপিকগুলো প্রথম থেকে ভালো করে পড়লেই মেডিকেল ভর্তি পরিক্ষায় ভালো করা সম্ভব।

                         পরিসংখ্যান
      টপিক                              ২০০১-২০১৬
১. সংগঠন ও সংস্থা                        ১২ বছর
২. খেলাধুলা ও পুরস্কার                   ৯ বছর
৩. মুক্তিযুদ্ধ                                    ৮ বছর
৪. ইতিহাস                                     ৮ বছর
৫. সংস্কৃতি                                      ৮ বছর
৬. শিক্ষা ও সাহিত্য                         ৭ বছর
৭. সভ্যতা                                       ৫ বছর
৮. রাজধানী ও মুদ্রা                         ৪ বছর
৯. সংবাদ সংস্থা ও বিমান সংস্থা        ৪ বছর
১০. বিখ্যাত স্থান                              ৪ বছর
১১. বিখ্যাত ব্যক্তিত্ব                          ৪ বছর
১২. সাম্প্রতিক                                ৪ বছর
১৩. নদ-নদী                                   ৩ বছর
১৪. দিবস                                       ৩ বছর

 

 

English

মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষায় ইংরেজী যে একটি অতি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় এ কথা তোমরা অনেকে সঠিকভাবে অনুধাবন করোনা। যার ফলে অন্য সব বিষয়ের প্রস্তুতি ভালো হলেও ইংরেজির ক্ষেত্রে প্রস্তুতিতে পিছিয়ে থাকো তোমরা। এ কারনে তোমরা অনেকেই কাঙ্ক্ষিত লক্ষ্যে পৌঁছাতে ব্যর্থ হও। মেডিকেলে ভর্তি পরীক্ষায় ভাল করতে  হলে বিজ্ঞানের বিষয়গুলোর মত ইংরেজীকে ও সমান,বরং কিছু কিছু সময় তার থেকেও বেশি গুরুত্ব দিতে হবে। আলাদা করে ইংরেজী বিষয়ের ক্লাশগুলোর আশায় বসে না থেকে প্রথম থেকে নিয়মিত ও নিযমতান্ত্রিকভাবে অধ্যয়ন করলেই ইংরেজী বিষয়ে বেশ ভালো করা  সম্ভব।

 

মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষার ফলাফল পর্যালোচনা করলে দেখা যায় যে, তোমরা বিজ্ঞানের বিষয়গুলোতে কম-বেশি ভালোই কর, ব্যবধান বা আসল  পার্থক্যটা হয় ইংরেজী অংশে এসে। যে ইংরেজীতে ভালো করে সে এগিয়ে থাকে আর যে খারাপ করে সে ভর্তিযুদ্ধ থেকে ছিটকে পড়ে। তাই মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষার ক্ষেএে ইংরেজীর গুরুত্ব অপরিসীম।


একটি প্রচলিত প্রবাদ রয়েছে- 'A plan is a half done' অর্থাৎ পরিকল্পনা কাজের অধের্ক। সঠিকভাবে পরিকল্পনা করতে পারলে তোমার কাজে সাফল্য আসবেই।


What You Need to do at the Very First Day:
Retina Digest এবং Retina Guide এর Topic গুলোতে ভালোমত চোখ বুলিয়ে নেওয়া, এরপর অন্ততবিগত ২/৩ বছরের প্রশ্নসমূহ দেখে গুরুত্বপূর্ণ বিষয়গুলো চিহ্নিত করে ফেলা। মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষার জন্য কম-বেশি তিন থেকে সাড়ে তিন মাস সময়পাবে। কিছুদিন হাতে রেখে ৮০ দিনের একটি দৃঢ় পরিকল্পনা করে ফেলো কোনদিন কোন অংশপড়বে। Digest এবং Retina Guide এ দেওয়া বিষয়গুলো পরীক্ষার আগে অবশ্যই শেষ করতে হবে।


কোন Topic কতদিন পড়বে?
কিছু কিছু Topic আছে যা ১ দিন বা সর্বোচ্চ ২ দিনে অবশ্যই শেষ করবে যেমন-
Number, Gender, TagQuestion, Article, Clause ইত্যাদি। আর কিছু কিছু Topic আছে যা তোমাকে অবশ্যই বেশি সময় নিয়ে পড়তে হবে। যেমনCorrections, Right Form of Verbs, Transformations, Tense & Sequence of Tense.


নিচের সারণি অনুসারে বিষয়গুলো পড়লে আশা করা যায় তোমরা  ভালো করবে।

Sl No

Topic Name

You should spend (Day)

Recommended Books

1.

Parts of Speech(N,P,Adj,V,Adv)

06

Digest & Guide

2.

Corrections

10

Digest & Guide 

3.

Proverbs and Translation

08

Digest & Guide

4.

Tense & Conditional Sentence

05

Digest & Guide

5.

Right Form of Verbs

04

Digest & Guide

6.

Voice

03

Digest & Guide

7.

Narration

02

Digest & Guide

8.

Transformation

04

Digest & Guide

9.

Degree of Comparison

02

Digest & Guide

10

Sentence Completion

03

Digest & Guide

11.

Tag Question

01

Digest & Guide

12.

Number & Gender

02

Digest & Guide

13.

Subjunctive and Causative Verb

02

Digest & Guide

14.

Article & Degree of Comparison

02 Days

Digest & Guide

15.

Affirmative & Negative Agreement

01

Digest & Guide

16.

Synonym and Antonym

Everyday 20 new vocabulary

Digest & Guide

17.

Phrase & Idioms

05

Digest & Guide

18.

Appropriate Preposition

10

Digest & Guide

19.

Spelling

05

Digest & Guide

20.

Group Verb

05

Digest & Guide

21.

Medical Questions’ solve

03

Digest & Guide

22.

BCS Questions’ Solve

04

Digest & Guide

23.

B + D Unit Questions’ Solve

08

Digest & Guide

24.

Revision of All

10

Digest & Guide

 

Grammer ছাড়া আর কি কি পড়তে হবে?
Grammer ছাড়াও নিম্নোক্ত Topic গুলো অবশ্যই মুখস্থ করতে হবে। এসব বিষয়ে ভালো করতে হলে নিয়মিত অনুশীলন তথা মুখস্থছাড়া কোন অধিকতর উপকারী Alternative নেই। মনে রাখবে, এসব বিষয় থেকে মেডিক্যাল ভর্তি পরীক্ষায় প্রতি বছর কমপক্ষে ৬/৭ টি প্রশ্ন আসে।

1. Vocabulary    

2. Appropriate         

3. Spelling         

4. Group Verb


একটি প্রশ্ন প্রায়ই শোনা যায় যে, ভাইয়া উপরোক্ত বিষয়গুলো মনে থাকেনা বা বার বার পড়লেও ভুলে যাই! সত্যি বলতে,এসব বিষয় কারোরই সহজে মনে থাকেনা। বরং বুদ্ধিমানের কাজ হল দুশ্চিন্তা বাদ দিয়ে কিভবে মুখস্থকরা যায় সে কৌশল রপ্ত করা এবং আজকে থেকেই পড়া শুরুকরে দেওয়া। একটা কথা মনে রেখো-   Practice is not the thing you do at once you’re good. It is the thing you do that makes you good."

কোন সময় কোন Topic পড়বে?
Grammer এর কঠিন বিষয়গুলো অবশ্যই অবসরে এবং সময় নিয়ে পড়া উচিত।
Appropriate Preposition,Group Verb & Spelling ঘুমোতে যাওয়ার আগে শুয়ে শুয়ে পড়তে পারো। তবে অবশ্যই ইংরেজীর অন্যান্য পড়া একদিনের জন্যও বাদ দিবে না।


কোন বই থেকে পড়বে?
Retina Guide & Digest  দীর্ঘ ৩৭ বছরের অভিজ্ঞতার আলোকে Senior শিক্ষক বৃন্দের তত্ত্বাবধানে রচিত বেশ ব্যতিক্রমী সংকলন। তাই তুমি অবশ্যই Retina Guide & Digest শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত পড়বে। এসব বই শেষ হলে তোমর পছন্দ মত বাজারের যে কোন বই পড়তে পারো।


আর অন্য কিছু পড়তে হবে কি?
মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষায় ইংরেজীতে ভালো প্রস্তুতির জন্য ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের
B & D Unit, BCS Question Bank এবং বিগত বছরের মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষার Question সমূহ ভালোমত বুঝে পড়তে ও সমাধান করতে হবে। মনে রাখবে, পড়া মানে শুধু উত্তর জানা নয় বরং কি কারণে উত্তরটি সঠিক আর কেনইবা অন্য Option গুলো ভুল তা বুঝে পড়তে পারলে তোমার অনেক কাজে দেবে।


English Lecture এর আগে করণীয়:
তোমাদের জন্য ইংরেজীর ২ টি লেকচার আছে। সত্যিকার অর্থে এ ২ টি লেকচারের মাধ্যমে পুরো
English Syllabus শেষ করা অসম্ভব প্রায়। তাই ইংরেজী ক্লাশের আগের দিন ঐ লেকচার শিটের সব বিষয়গুলো ভালমত দেখে আসবে যাতে তোমার লেকচার বুঝতে সুবিধা হবে। 


সর্বশেষ কথা
তোমাদের মধ্যে অনেকেই এমন ধারনা পোষণ কর যে,আগে অন্য বিষয়গুলো শেষ করে নেই তারপর ইংরেজি পড়বো। কিন্তু এই তারপর আর কখনও হয়না। আর এ কারণেই পরীক্ষার আগে তোমরা হতাশ হয়ে যাও। যা তোমাদের গোছানো প্রস্তুতিকে  এলোমেলো করে দেয়। ফলে পরীক্ষায়ভাল করা তোমাদের জন্য অনেক কঠিন হয়ে যায়। তাই তোমাদের প্রস্তুতি কে সমৃদ্ধ করার জন্য অন্যান্য বিষয়ের সাথে অবশ্যই নিয়মিত ইংরেজীপড়তে হবে। তাহলে তোমাদের সফলতা আসবেই ইনশাআল্লাহ।